সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১২, ২০১৭ তারিখে ৩:৪৫ অপরাহ্ণ
আজ : ৩০শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং | ১৬ই বৈশাখ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

নতুন রূপে রেডিও -এর ফিরে আসা

admin | এপ্রিল ৬, ২০০৭, ১২:২৭ অপরাহ্ণ
Domain

একসময় রেডিও ছিলো সাধারণ মানুষের একমাত্র বিনোদনের মাধ্যম। টেলিভিশনের সহজলভে্যর কারণে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা হারায় এই বিনোদনের মাধ্যমটি। এরপর আসতে থাকে বিভিন্ন মাধ্যম। চলার পথে গান শোনার জন্য জনপ্রিয়তা পায় এমপিথ্রির প্লেয়ার, যা হাতের মুঠোয় থাকা মোবাইলেও যুক্ত হয়। কিন্তু নির্দিষ্ট সংখ্যক গান বা সংবাদের চাহিদার জন্য এতেও সন্তুষ্ট থাকতে পারেনি মানুষ। নতুন আঙ্গিকে ও সগৌরবে ফিরে আসে সেই রেডিও, অনেকটা যেন ‘পুরাতন চাউল ভাতে বাড়ে’ এর মত। রেডিও শুধু ডিজিটাল রূপেই আসেনি এসেছে আরো আকর্শনীয় ভাবে, যা বর্তমানে সবচেয়ে জনপি্রয় মাধ্যম মোবাইলেও ঠাই পেয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে মোবাইলে রেডিও না থাকলে যেন চলেই না।
এফএম ব্যান্ডের এইসব রেডিও চ্যানেল শুধু গানই প্রচার করেনা সংবাদসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানও প্রচার করে। এফএম শব্দের অর্থ ফ্রিকোয়েন্সি মডুলেশন। ১৯৪৬ সালে মনো এফএম ব্যন্ডের আবিস্কার হয়। এর ১৪ বছর পর ১৯৬০ সালে তা উন্নতি হয়ে স্টেরিও এফএম ব্যান্ডে রূপ নেয়। সারা বিশ্বের সকল ফ্রিকোয়েন্সি ৮৭.৫ থেকে ১০৮.০ মেগাহার্জের রেঞ্জের মধে্য সীমাবদ্ধ থাকে। কিন্তু ব্যাতিক্রম হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ৮৭.৯ থেকে ১০৭.৯ মেগাহার্জ এবং জাপানের জন্য ৭৬.০ থেকে ৯০.০ মেগাহার্জ বরাদ্ধ রয়েছে। বাংলাদেশে বেশকিছু এফএম রেডিও চ্যানেল রয়েছে যা রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার আশেপাশে এবং চট্টগ্রামের কিছূ এলাকাতে নেটওয়ার্কের আওতাধীন। রেডিও চ্যানেলগুলো হচ্ছে ভয়েস অব আমেরিকা ৯৭.৬ মেগাহার্জ, রেডিও টুডে ৮৯.৬ মেগাহার্জ, রেডিও ফুর্তি ৯৮.৪ মেগাহার্জ, বিবিসি ১০০.০ মেগাহার্জ, রেডিও আমার ১০১.০ মেগাহাজর্, ট্রাফিক কার্যক্রম ১০৩.২ মেগাহার্জ, রেডিও বাংলাদেশ ১০৬.৫ মেগাহার্জ ইত্যাদি।
বর্তমানে বেশকিছূ মোবাইল নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান তাদের মোবাইলে এফএম যুক্ত করছে। মূলত মোবাইলে এফএম এর জন্য বিশেষ হার্ডওয়্যার এফএম রেডিও এর সংযোগ স্থাপন করে। এফএম রেডিও যুক্ত কয়েকটি মোবাইল মডেল দেওয়া হলে।
স্যামসাং: এক্স ২১০, সি২৩০, এসজিএইচ-ডি৬০০ ইত্যাদি।
নকিয়া: ২২৫৫, ২৩০০, ২৩১০, ২৩৫৫, ২৮৫৫, ৩১৫৫, ৩২০০, ৫২০০, ৫৩০০, ৫৫০০, ৬০৩০, ৬১০১, ৬১০৩, ৬১১০, ৬২৩৩, ৬২৫৫আই, ৬২৫৬আই, ৬২৬৫, ৬৩০০, ৬৬১০আই, ৭২৫০, ৭২৬০, ৭৩৬০, এন ৭০, এন ৭২, এন ৭৩, এন ৭৬, এন ৭৭, এন ৯৫, এন ৯৭, ই৫০, ই৯০, এইচএস-২আর ইত্যাদি।
মটোরলা: ২৮০আই, এল ৬আই, এল ৭আই, আরওকেআর ই২, সি ১১৭, সি ১৩৯, সি ১৬৮, সি ১৫৭, সি ৩৪৩, সি ৩৮০/৩৮১, সি ৫৫০, সি ৬৫০/৬৫১, ভি ৬০আই, ভি ৬৫পি, ভি ৬৬আই, ভি ২২০, ভি ৩০০, ভি ৩০৩, ভি ৮১০, ভি ৮৭৮, টি৭২০, এমপিএক্স২০০, ভি ৬৩৫ আরওকেআর ইত্যাদি।
সনি এরিকসন: জেড ৫৫০, ডাব্লিউ ৭১০, ডাব্লিউ ৮৫০ আই, ডাব্লিউ ৯৫০ ইত্যাদি।
অনান্য: সিমেন্স এসএ•১ ইত্যাদি।
এছাড়াও বিভিন্ন এমপিথি্র প্লেয়ার, আইপডসহ বিভিন্ন ডিভাইসে ডিজিটাল রেডিও যুক্ত হচ্ছে। চলার পথে বিনোদনের পাশাপাশি দেশবিদেশের সংবাদ, খেলাধুলার আপডেট, ঢাকার ট্রাফিক পরিস্থিতির সরাসরি সংবাদসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য। কদিন আগেও কারো হাতে রেডিও নিয়ে ঘুড়তে দেখলে ভ্রু কুঁচকাতে দেখা যেতো কিন্তু এখন হেডফোন কানে আর রেডিও পকেটে থাকাটায় স্বাভাবিক।

মন্তব্য করুন