সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৭ তারিখে ৮:০৭ অপরাহ্ণ
আজ : ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ২রা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

‘গুগল প্লাস’ এর কিছু তথ্য

মেহেদী আকরাম | জুলাই ২, ২০১১, ৩:১৫ অপরাহ্ণ
Domain

জনপ্রিয় সামাজিক নেটওয়ার্কের সাইট ফেসবুকের নতুন প্রতিদ্বন্দ্বি হিসাবে আসলো সার্চ জায়ান্ট গুগল ইনকোর্পরেশনের গুগল প্লাস (গুগল+)। গুগলের আরেক সামাজিক সাইট অরকুট জনপ্রিয়তা না পেয়ে নতুন এই সামাজিক নেটওয়ার্কের সাইট নিয়ে আসলো। এখন দেখার বিষয় ফেসবুকের সাথে এটা কতটা পাল্লা দিয়ে চলতে পারে। তবে গুগল প্লাসের সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে এটা জিমেইল থেকে ব্যবহার করা যায়, ফলে নতুন করে লগইন করতে হবে না।
গুগল+ এর ঠিকানা হচ্ছে https://plus.google.com। অনেকটাই ফেসবুকের আদলে তৈরী এই গুগল প্লাস। এখানে ফেসবুকের মত সার্কেল তৈরী করা যাবে আর ছবি এবং ভিডিও আপলোড করা যাবে। এতে রয়েছে ফটো ট্যাব, ভিডিও ট্যাব, +১ ট্যাব, বাজ ট্যাব। যাদের গুগল প্লাস অ্যাকাউন্ট নেই তারাও অন্যের গুগল প্লাস প্রোফাইল দেখতে যেমনটি হয় না ফেসবুকে। আর এসবই গুগল সার্চে দেখাবে কিনা তা নির্ধারণ করা যাবে প্রোফাইলে।

ব্রাউজার: গুগল প্লাস বর্তমানে মজিলা ফায়ারফক্স, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, গুগল ক্রোম, এবং সাফারিতে সমর্থন করে।
গুগল + এ বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানানো: বন্ধুদেরকে গুগল প্লাসে আমন্ত্রণ জানাতে গুগল প্লাসের ডানের প্যানেলে (সদ্য যুক্ত হওয়া) Send invite এর Invite people to join Google+ এ ক্লিক করুন তাহলে একটি পপআপ উইন্ডো আসবে সেখানে +Add people to invite অংশে যাকে আমন্ত্রণ জানাতো চান তার ইমেইল ঠিকানা লিখে Invite বাটনে ক্লিক করুন। তহালে আপনার বন্ধুর ইমেইলে গুগল+ এর ইনভাইটেশন চলে যাবে।
গুগল প্রোফাইল: এখন থেকে গুগল প্রোফাইল বলে আলাদা কোন পেজ আর থাকছে না। গুগল প্রোফাইল লিংক গুগল প্লাসের প্রোফাইল হিসাবে ব্যবহৃত হবে এবং গুগল প্রোফাইল লিংকে (যেমন, https://profiles.google.com/mehdiakram) ঢুকলে তা ফরওয়ার্ড হয়ে গুগল প্লাসের প্রোফাইলে চলে আসবে।
পোষ্ট শেয়ার করা: কোন পোষ্ট শেয়ার করতে চাইলে তা পাবলিক না নির্দিষ্ট সার্কেলের জন্য করা যাবে। এজন্য Share বাটনের উপরে Add more people এ ক্লিক করে তা নির্ধারণ করা যাবে।
গুগল +১ বাটন: বেশ কিছুদিন আগে গুগল +১ বাটনে এনেছে গুগল। এটা অনেকটা ফেসবুক লাইক বাটনের মত। গুগল প্রোফাইলে +১ বাটন থাকলে তাতে Show this tab on my profile এ ক্লিক করে +১ বাটন সক্রিয় করুন। আর যদি +১ বাটন না থাকে তাহলে গুগলে সার্চ করুন এবং দেখুন ফলাফলের ডানে +১ বাটনে রয়েছে। এই ১ বাটনে ক্লিক করুন এবং নতুন উইন্ডো থেকে Confirm and +1 বাটনে ক্লিক করুন। এবার দেখুন +1’s বাটন এসেছে।
সার্কেল তৈরী করা এবং বন্ধুদের সার্কেলে যুক্ত করা: সার্কেলকে আমরা ক্যাটাগরি বা ফেসুবকের লিষ্টের মত। সার্কেল তৈরী করতে Circles এ ক্লিক করে দেখা যাবে নিচে কতগুলো সার্কেল রয়েছে। এখানে বামে Drop here to create a new circle এ ক্লিক করে সার্কেল তৈরী করা যাবে। এখন বন্ধুদেরকে সার্কেলের উপরে ড্রাগ করে আনলেই হবে। এছাড়াও কোন বন্ধু বা প্রোফাইল সার্কেলে যুক্ত রকা না থাকলে Add to circles এ ক্লিক করে পছন্দের সার্কেলে যুক্ত করা যাবে।
জিমেইল থেকে শেয়ার করা: জিমেইল থেকে গুগল প্লাসে পোষ্ট করতে চাইলে জিমেইলের উপরে ডানে Share এ ক্লিক করে লিখে Share বাটনে ক্লিক করলেই হবে।
জিমেইল নটিফিকেশন পাওয়া: গুগল প্লাসে কোন আপডেট আসলে তা জিমেইলের উপরে ডানে Notifications বাটনে সংখ্যা দেখা যাবে যেখানে ক্লিক করে নটিফিকেশনগুলো পাওয়া যাবে এবং নটিফিকেশনটিতে ক্লিক করলে গুগল প্লাস পেজ খুলবে। এছাড়াও উপরে বাম পাশে গুগল প্লাসের একটি ট্যাবও পাওয়া যাবে যেখানে ক্লিক করে গুগল প্লাসে যাওয়া যাবে।
জিমেইলে গুগল প্লাসের মেইল: গুগল প্লাসে কোন আপডেট আসলে বা মন্তব্য করলে তা জিমেইলে মেইল হিসাবে আসবে যেমনটা গুগল বাজের ক্ষেত্রে আসে। তবে চাইলে গুগল প্লাসের সেটিংস থেকে মেইল আসা বন্ধ করা যাবে।
গুগল পিকাসা: গুগল পিকাসাতে থাকা পাবলিক ছবি এ্যালবামগুলো গুগল প্লাসের ফটো ট্যাবে দেখা যাবে। আর গুগল প্লাস থেকে কোন ছবি যুক্ত করলে তা গুগল পিকাসার Scrapbook Photos এ্যালবামে যুক্ত হবে।
গুগল প্লাস থেকে মেইল করা: গুগল প্লাস থেকে কোন বন্ধুকে সরাসরি মেইল করা যাবে যা তার জিমেইলে পৌছে যাবে। এজন্য বন্ধুর প্রোফাইলে বাম পাশে থাকা ছবির নিচে Send an Mail বাটনে ক্লিক করে মেইলের বিষয় এবং মেইল লিখে Send Mail বাটনে ক্লিক করলেই হবে। কোন বন্ধুকে মেইল সেন্ড করলে তা জিমেইলের ইনবক্সে এবং সেন্টে চলে আসবে।
মোবাইলে গুগল প্লাস: মোবাইলে গুগল প্লাস ব্যবহার করা যাবে m.google.com/plus লিংক থেকে।
চ্যাট করা: গুগল প্লাসের বন্ধুদের সাথে চ্যাট করতে বাম পাশের প্যানেল Chat এ ক্লিক করে চ্যাট করা যাবে।
হ্যাঙআউটস: হ্যাঙআউটস হচ্ছে বন্ধুদের সাথে ভিডিও এবং ভয়েস চ্যাট করা ব্যবস্থা। ডানের প্যানেলে Start a Hangout এ ক্লিক করলে নতুন একটি উইন্ডোতে হ্যাঙআউটস চালু হবে। এজন্য এবশ্য গুগল ভয়েস প্লাগইন ইনস্টল থাকতে হবে।
স্পার্কস: স্পার্কস হচ্ছে কোন ওয়েবসাইটে ফেড থেকে তথ্য দেখার ব্যবস্থা। বাম পাশের Sparks এ ক্লিক করলে কিছু ডিফল্ট স্পার্কস আসবে এখানে কোনটির উপরে ক্লিক করলে বা সার্চ বক্সে কোন বিষয় বা ওয়েবসাইটের ঠিকানা লিখে সার্চ করলে ফলাফল আসবে। স্পার্কটিকে সেভ করে রাখতে চাইলে Add interest বাটনে ক্লিক করলে বাম পাশের প্যানেলে তা যুক্ত হবে।
সাজেশন: ফেসবুকের মত Suggestions দেখা যাবে ডানের প্যানেলে।
গুগল প্লাস সেটিংস: গুগল প্লাস সেটিংস থেকে দরকারী কিছু পরিবর্তন করা যাবে, এজন্য উপরের ডানে Options বাটনে ক্লিক করে Google+ Settings এ ক্লিক করে বিভিন্ন সেটিং পরিবর্তন করা যাবে। যেমন মেইল হিসাবে আসা নোটিফিকেশন বন্ধ করা, প্রাইভেসি পরিবর্তন করা, ভাষা সেট করা, ডাটা ডাউনলোড করা এবং অন্য অ্যাকাউন্ট যুক্ত করা এবং গুগল প্লাস অ্যাকাউন্ট ডিলিট করা ইত্যাদি।
ফেসবুক বনাম গুগল প্লাস: ফেসবুক এবং গুগল প্লাসের মধ্যে বেশ কিছু সাদৃশ্য অনেক শুধু নামের পার্থক্য) এবং কিছু বাড়তি সুবিধা রয়েছে বা কিছু সুবিধা অপেক্ষামান।
গুগল+ এবং ফেসুবকের সাদৃশ্য:
গুগল+ এ রয়েছে Stream যা ফেসবুকে Status যাতে লেখার পাশাপাশি ছবি, ভিডিও, লিংক শেয়ার করা যায়।
গুগল+ এবং ফেসবুকের উভয়েরই রয়েছে তিনটি কলাম
উভয়েরই মন্তব্য করা এবং তা শেয়ার, রি-শেয়ার করা যায়
ছবিতে ট্যাগ করা এবং মন্তব্য করা যায়
নোটিফিকেশন ব্যবস্থা
উভয়েরই চ্যাটিং ব্যবস্থা রয়েছে
উভয়েরই সার্চের ব্যবস্থা রয়েছে
ফেসবুকে লাইক আর গুগল প্লাসে +১
গুগল প্লাসে সার্কেল আর ফেসবুকে লিষ্ট
এছাড়াও বেশ কিছু মিল রয়েছে
গুগল প্লাসের বাড়তি সুবিধা:
গুগল+ এ লোকেশন শেয়ার করা যায়
গ্রুপ ভিডিও চ্যাটিং (হ্যাঙআউটস) করা যায়
গুগল প্লাসে যেগুলো নেই:
ফেসবুকে প্রশ্ন করার ব্যবস্থা আছে যা গুগল+ এ নেই (সমপ্রতি এটি যুক্ত হয়েছে), এছাড়াও ফেসবুকে গ্রুপ, নোট, প্রচুর এ্যাপলিকেশেন রয়েছে যা গুগল+ এ নেই।

৫টি মন্তব্য

  1. খুবই কাজের জিনিস , কয়েকদিন ধরে গুগল+ সম্পর্কে জানার জন্য চেষ্টায় ছিলাম , অবশেষে আপনার মাধ্যমে মিলে গেল।। ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর সুন্দর পোষ্ট উপহার দেওয়ার জন্য ।।

মন্তব্য করুন