সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১২, ২০১৭ তারিখে ৩:৪৫ অপরাহ্ণ
আজ : ২৮শে মে, ২০১৭ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

আইন এবং নিরপেক্ষতা

admin | ডিসেম্বর ২৯, ২০০৭, ১:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Domain

ছোট বেলাতে মুখস্থ করেছি আইনের চোখে সবাই সমান কিন্তু যখন বুঝতে শিখেছি আইন কি, তখন থেকেই দেখেছি আইন সবার জন্য সমান নয় বা আইনের চোখে সবাই সমান নয়। এমন নজির হাজারো দেখা যায়। কয়েক হাজার টাকা চুরি করে বা বিনা বিচারে অনেকেই যেমন জেল খাটছে আর কোটি কোটি টাকা চুরি করে বহাল তবিয়তে ডিভিশন নিয়ে অনেকে জেলে থাকছে। অর্থাৎ আইন তৈরী হয়েছে বড় চোরদের অধিক সুবিধা দেওয়ার জন্য। এমতবস্থায় বর্তমান সামরিক মদনপুষ্ট অন্তরবর্তীকালিন সরকার অনান্য রাজনৈতিক সরকার থেকে যেমন ভিন্ন তেমনই এদের লক্ষ্যও ভিন্ন। ফলে এই সরকারের কাছে পূর্বের অন্য যে কোন সরকারের চেয়ে আইনের সঠিক প্রয়োগ বা নিরপেক্ষতা আশা করা স্বাভাবিক| অতীতে সকল রাজনৈতিক সরকার আইন এবং প্রশাসন এমনকি আদালতকে তাদের পক্ষে ব্যবহার করেছে নিজেরদের স্বার্থ হাসিলের জন্য। গড়িমসি করে তারা বিচার বিভাগ পৃথক করেনি। এমনবস্থায় বর্তমান সরকার ক্ষমতা নেবার পরে মনে হলো একমাসের মধ্যে বিচার বিভাগ পৃথক হয়ে যাবে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি যা বলছে তাতে এ সরকার ক্ষমাতায় থাকা অবস্থায় বিচার বিভাগ পৃথক করবে বলে মনে হয় না কারণ বিচার বিভাগ পৃথক হলে তার উপরে সরকারের কর্তৃত্ব থাকে না।
বর্তমান সরকার সম্পূর্ণ নগ্নভাবে বিচার বিভাগকে ব্যবহার করছে, যা পূর্বের রাজনৈতিক সরকারও করেনি। আমি এখানে ন্যায় অন্যায়ের কথা বলছি না। যারা এতদিনে দেশের সম্পদ লুটেপুটে খেয়েছে, সম্পদ পাচার করেছে, গাড়ি বাড়ি করেছে, খুন ধর্ষণ করেছে, শোষণ নিপিড়ন করেছে বা বিভিন্ন ধরনের অন্যায় অপকর্ম করেছে তাদের অবশ্যয় শাস্তি হওয়া উচিৎ। কিন্তু তাদেরকে শাস্তি দেবার জন্য প্রচলিত আইনের বাইরে গিয়ে নতুন আইন করে বা বিচার বিভাগ প্রভাবিত করে তাদেরকে আটকানো অন্ধকার নিয়ে অন্ধকার দুর করা মতই। আইন তৈরী, পরিবর্তন বা সংশোধন যদি এতই সহজে করা যায় তাহলে এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবার সম্ভাবনা অনেক বেশী, যার ফল যতটানা উনারা (যারা আইন তৈরী করে, পরিবর্তন বা সংশোধন করে নিজেদের পছন্দমত) ভোগ করবেন তার চেয়ে বেশী ভোগ করবো আমরা সাধারণ মানুষ। এভাবে বিচার বিভাগকে ব্যবহার করায় জনমনে যেমন প্রশ্ন উঠেছে, তেমনই বিচার বিভাগের উপরে সাধারণ মানুষের আস্থাও কমে গেছে। মোট কথা অনান্য সরকারের মতই এই সরকারের ইচ্ছামতই বিচার বিভাগ প্রচালিত হচ্ছে। এতে বিচার বিভাগের নিরপেক্ষতা এবং ন্যায় বিচার পাবার শংকা রয়েছে, যা কখনওই ভাল ফল এনে দেবে না।

মন্তব্য করুন