সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১২, ২০১৭ তারিখে ৩:৪৫ অপরাহ্ণ
আজ : ২৭শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং | ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সামাজিক সাইট থেকে ওয়েবসাইটের ভিজিটর কিভাবে বৃদ্ধি করবেন?

মেহেদী আকরাম | আগস্ট ১৪, ২০০৯, ১১:৩০ অপরাহ্ণ
Domain

বর্তমানে প্রযুক্তি বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ সামাজিক গণমাধ্যম যেমন ফেসবুক, টুইটার, গুগল প্লাস বা অন্যান্য সামাজিক ওয়েবসাইটের উপরে নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। দিনের অধিকাংশ সময় তারা সামাজিক সাইটে ব্যয় করছে।

বিশ্বে প্রচুর ওয়েবসাইট নির্মিত হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত অসংখ্য ওয়েবসাইট জন্ম নিচ্ছে কিন্তু সেই ওয়েবসাইট গুলোর পাঠকের চাহিদার কথা চিন্তা করলে দেখা যায় অধিকাংশ ওয়েবসাইট পর্যাপ্ত পাঠক পায় না । একটি ওয়েবসাইট তখনি পরিপূর্ণতা লাভ করে যখন তাতে পর্যাপ্ত ভিজিটরের সমাগম ঘটে। এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে যা আমরা অবহেলা করে থাকি বা আমলে নেইনা।
বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগের সাইটে প্রচুর ভিজিটরের সমাগম ঘটে থাকে এই প্রচুর ভিজিটরের অল্প কিছু অংশ যদি প্রতিনিয়ত আপনি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে পান তবে আপনি একটি সফল ব্লগ পরিচালনা করতে পারবেন।

social-media-visitors

ফেসবুকের মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি:
ফেসবুকের মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি করা খুবই সহজ এবং সুন্দর একটি পদ্ধতি। আপনি যদি আপনার ব্লগের বা ওয়েবসাইটের নামে গ্রুপ বা পেজ তৈরি করেন তবে এর মাধ্যমে সহজেই আপনি নিয়মিত পাঠক পাবেন। এছাড়াও ফেসবুকের সোসিয়াল শেয়ারিং বাটন যদি আপনার ওয়েবের পাতায় যুক্ত করেন তবে আপনার ব্লগের পাঠকরাই আপনার লিঙ্ক শেয়ার করে ভিজিটর পাঠাবে। এছাড়াও আপনি বিভিন্ন গ্রুপে যোগ দিয়ে আপনার ব্লগের প্রচারের মাধ্যমে সহজেই প্রচুর ভিজিটর পাবেন।
এছাড়া‌ও ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিয়ে ভিজিটর বৃদ্ধি করতে পারেন।

টুইটারের মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি:
টুইটার বিশ্বের জনপ্রিয় একটি মাইক্রোব্লগিং সাইট এর মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি করা যায় সহজেই। প্রথমে আপনাকে একটি টুইটার একাউন্ট তৈরি করতে হবে অতঃপর নিজের একাউন্টের ফলোয়ার বৃদ্ধি করতে হবে এবং আপনার ফলোয়ারদের সাথে রিলেশন বৃদ্ধি করতে হবে। নিয়মিত তাদের পোষ্টকে টুইট করুন দেখবেন আপনি যখন আপনার ব্লগের জন্য টুইট করছেন তখন আপনার টুইটকে তারাও ছড়িয়ে দিচ্ছে এভাবে সহজেই আপনি প্রচুর ভিজিটর পাবেন।

গুগল প্লাসের মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি:
গুগল প্লাসের মাধ্যমে ওয়েবের পাঠক বৃদ্ধি করা যায় সহজেই। বর্তমানে গুগল প্লাস ফেসবুকের মত সামাজিক কমিউটিনি তৈরির উপরে জোর দিয়েছে এখন আপনি গুগল প্লাস একাউন্ট থেকে ফেনপেজ তৈরি করতে পারবেন এছাড়াও আপনার যদি ভাল ফলোয়ার থাকে তবে আপনার ব্লগ পোস্টের লিঙ্ক শেয়ারিং এর মাধ্যমে প্রচুর ভিজিটর পেতে পারেন। আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য অবশ্যই গুগল প্লাসের সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন যুক্ত করতে ভুলবেননা কারন এর মাধ্যমে আপনার ব্লগের পাঠকরাই আপনার পোষ্টকে ছড়িয়ে দিবে সর্বত্র।

আপনি যদি প্রফেশনাল হন এবং আপনার ব্লগ বা ওয়েবের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করতে চাইলে আপনাকে নিজের মত করে নয় পাঠকের চাহিদার উপরে ভিত্তি করে পোস্ট লিখতে হবে । আর যদি ব্যাক্তিগত ব্লগ পরিচালক হন তবে আলাদা কথা । পাঠকের চাহিদার উপরে আপনার ব্লগ নির্মিত হলে আপনাকে সামাজিক সাইটে সেই দ্গরনের পাঠকে যুক্ত করার চেস্টা করতে হবে। ধরুন আপনি খাদ্য সংক্রান্ত ব্লগ তৈরি করছেন এবং আপনার ফেনপেজ বা গ্রুপগুলো মার্কেটিং সম্পর্কিত তাহলে আপনি সেই গ্রুপের ব্যাবহারকারিদের কাছে বরিক্তিকর হিসেবে পরিচিত হবেন।

মন্তব্য করুন